scorecardresearch
 

বেআইনি টি-টুরিজম বন্ধের দাবি, দার্জিলিংয়ে অনশনে হামরো পার্টি

চা-গাছ তুলে ফেলে সেখানে জোর করে হোম-স্টে তৈরি করা হচ্ছে। অভিযোগ তুলে টি-টুরিজম বন্ধের দাবি তুলে, দার্জিলিংয়ে অনশনে বসলেন হামরো পার্টি।

অনশনে হামরো পার্টি অনশনে হামরো পার্টি
হাইলাইটস
  • রিলে অনশনে হামরো পার্টি
  • বেআইনি টি-টুরিজমের বন্ধের দাবি
  • চা গাছ উঠিয়ে বেআইনি কাজ হচ্ছে

চা বাগানে কোনও রকম হোম-স্টে করতে দেওয়া যাবে না। এমন দাবি তুলে রিলে অনশন শুরু করেছিল দার্জিলিংয়ের নতুন দল ও পুরসভার শাসকদল হামরো পার্টি। তা এদিন রিলে অনশনের তৃতীয় দিন। অনশনে হাজির ছিলেন, পার্টি প্রেসিডেন্ট অজয় এডওয়ার্ড।

রঙ্গিত কাঞ্চন-ভিউ চা বাগানে শুক্রবার থেকে রিলে অনশন ধর্মঘট শুরু হয়। হোম-স্টেগুলির বিরুদ্ধে চা গাছ উপড়ে ফেলে হোম-স্টের মধ্যে নির্মাণ করা উচিত নয় বলে তাঁদের ক্ষোভ। অভিযোগ, সরকারি নিয়ম না মেনে চলছে হোম-স্টেগুলি। অথচ সরকারি ভাতার সুবিধা নিচ্ছে। এমন অভিযোগ তুলে রাজ্য সরকারের কাছে সে সমস্ত হোম-স্টেগুলির রেজিস্ট্রেশন বাতিল করার দাবি জানিয়েছিলেন দার্জিলিং পুরসভার শাসক দল হামরো পার্টি।

ছবি

হামরো পার্টির সভাপতি অজয় ​​এডওয়ার্ডও প্রথম দিন থেকে অনশনে বসেন। আইন না মেনে যে সমস্ত হোম স্টে চলছে, লিজ বাতিল করে বাগান দখলের জন্য মুখ্যমন্ত্রীর কাছে চিঠি লিখেছেন। এতে শামিল হন হোম-স্টের কর্মীরাই। শুধু কর্মীই নয়, এলাকার সমাজ ও হামরো পার্টির সভাপতি অজয় ​​এডওয়ার্ডস তার স্ত্রী সহ দলের অন্য নেতারা।

অজয় ​​এডওয়ার্ড লিজ বাতিল করার জন্য এবং দায়িত্ব নেওয়ার জন্য সিএমকে চিঠি লিখেছিলেন, কারণ মালিকরা সরকারি নিয়ম না মানছেন না। সরকারি নিয়ম হল, চা বাগানের অতিরিক্ত ও উদ্বৃত্ত জমিতে হোম-স্টে করা যেতে পারে। কিন্তু আইনের ফাঁক গলে অনেক বাগান কর্তৃপক্ষ চট-জলদি বেশি লাভ করার জন্য চা-গাছ উপড়ে ফেলে নিয়ম ভঙ্গ করছেন। এই সমস্ত চা গাছগুলি ১০০ বছরেরও বেশি। তারা হোম-স্টে তৈরি করতে চান। আর বাগান বন্ধ করার চেষ্টা করছে।

শনিবার এসপি, এডিএম অনশন মঞ্চ পরিদর্শন করে অনশন প্রত্যাহারের অনুরোধ করলেও তা গৃহীত হয়নি। এবং রিলে অনশন অব্যাহত রেখেছেন তাঁরা।