scorecardresearch
 
পশ্চিমবঙ্গ

Bangla Awas Yojana: বাংলা আবাস যোজনার বাড়ির তালিকা থেকে বাদ এক জেলার প্রায় ২৪,০০০ নাম!

Bangla Awas Yojana: বাংলা আবাস যোজনার বাড়ির তালিকা থেকে বাদ প্রায় ২৪,০০০ নাম!
  • 1/6

সম্প্রতি বাংলার বাড়ি প্রকল্প এবার কেন্দ্রীয় নগর উন্নয়ন মন্ত্রকের জিও ট্যাগিং (Geo Tagging) রেটিংয়ে শীর্ষে উঠে এসেছে। রাজ্য সরকারের কাছে এই সংক্রান্ত একটি রিপোর্ট সম্প্রতি এসে পৌঁছেছে। কেন্দ্রীয় মন্ত্রকের দেওয়া হিসেব অনুযায়ী, পশ্চিমবঙ্গে এই আবাস যোজনায় সাফল্যের হার ৯৭.৪৫ শতাংশ।

 

—প্রতীকী ছবি।

Bangla Awas Yojana: বাংলা আবাস যোজনার বাড়ির তালিকা থেকে বাদ প্রায় ২৪,০০০ নাম!
  • 2/6

কিন্তু বাংলা আবাস যোজনার ঘরের ‘পার্মানেন্ট ওয়েটিং লিস্ট’ তৈরির জন্য উদ্যোগী হয়েছে রাজ্য প্রশাসন। জেলায় জেলায় সেই মর্মে বার্তা পৌঁছে গিয়েছে। ইতিমধ্যেই বেশ কয়েক হাজার নাম বাদ গিয়েছে বাংলা আবাস যোজনার ঘরের তালিকা থেকে।

 

—প্রতীকী ছবি।

Bangla Awas Yojana: বাংলা আবাস যোজনার বাড়ির তালিকা থেকে বাদ প্রায় ২৪,০০০ নাম!
  • 3/6

যেমন, নদিয়া জেলায় বাংলা আবাস যোজনার তালিকায় নাম ছিল প্রায় ১ লক্ষ ৭৬ হাজার জনের। সম্প্রতি ওই তালিকা থেকে বাদ পড়েছে প্রায় ২৪,০০০ নাম! ২০১৬ থেকেই তালিকা অনুযায়ী আবাস যোজনার ঘর তৈরি করে দেওয়া শুরু হয়। কিন্তু সময়ের সঙ্গে সঙ্গে বাড়তে থাকে ‘ওয়েটিং লিস্ট’। এ বার তাই শুধুমাত্র যোগ্য পরিবারগুলির হাতে তাঁদের প্রাপ্য তুলে দিতে ঝাড়াই-বাছাই শুরু করেছে প্রশাসন।

 

—প্রতীকী ছবি।

Bangla Awas Yojana: বাংলা আবাস যোজনার বাড়ির তালিকা থেকে বাদ প্রায় ২৪,০০০ নাম!
  • 4/6

বাংলা আবাস যোজনায় ঘর পাওয়ার যোগ্য, অথচ তালিকায় নাম নেই! আবার এর উল্টোটারও অজস্র উদাহরণ রয়েছে। তালিকায় থাকা অনেকেরই নিজেদের পাকা বাড়ি রয়েছে। তাই জেলা স্তরে সার্ভে করা হচ্ছে।

 

—প্রতীকী ছবি।

Bangla Awas Yojana: বাংলা আবাস যোজনার বাড়ির তালিকা থেকে বাদ প্রায় ২৪,০০০ নাম!
  • 5/6

রাজ্য সরকার চায়, বাংলা আবাস যোজনার ‘পার্মানেন্ট ওয়েটিং লিস্ট’ যত তাড়াতাড়ি সম্ভব শূন্যয় নামিয়ে আনা। এখনও পর্যন্ত রাজ্যজুড়ে লক্ষাধিক নাম আবাস যোজনার ‘পার্মানেন্ট ওয়েটিং লিস্ট’-এ রয়েছে।

 

—প্রতীকী ছবি।

Bangla Awas Yojana: বাংলা আবাস যোজনার বাড়ির তালিকা থেকে বাদ প্রায় ২৪,০০০ নাম!
  • 6/6

যাঁদের ঘর পুরোপুরি তৈরি হয়ে গিয়েছে, এখনও পর্যন্ত এমন প্রায় সাড়ে ৩ লক্ষ মানুষকে দুটো কিস্তির টাকা দিয়ে দেওয়া হয়েছে। তবে তালিকা চূড়ান্ত করার আগে আরও বেশ কয়েক হাজার নাম তালিকা থেকে বাদ যেতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

 

—প্রতীকী ছবি।