scorecardresearch
 
 
বিশ্ব

গ্রহাণু সংঘর্ষে সৃষ্ট 'মহাঢেউ' লুকিয়ে আমেরিকায়, এতেই লুপ্ত হয় ডাইনোসর

প্রতীকী ছবি
  • 1/10

জলে ঢিল পড়লে যেমন ঢেউ ওঠে, ঠিক তেমনই কোটি কোটি বছর আগে যখন পৃথিবীর সঙ্গে গ্রহাণুর সংঘর্ষ হয়েছিল সেই সময় তার থেকেও বড় ঢেউ উঠেছিল। সেই  ঢেউ ছিল মাটিতে। যার জেরে পৃথিবীর বুকে সমস্ত ডাইনোসর মারা যায়। সেই ঢেউয়েরই সন্ধান পেয়েছে বিজ্ঞানীরা। সেই ঢেউ আমেরিকার একটি প্রদেশে মাটির নিচে লুকিয়ে রয়েছে। বৈজ্ঞানিকেরা এটিকে মহা ঢেউ বলছেন। নতুন একটি সমীক্ষাতে এই তথ্যই উঠে এসেছে। (সমস্ত ছবি সূত্র-গেটি)

প্রতীকী ছবি
  • 2/10

আমেরিকার লুইসিয়ানা প্রদেশে প্রায় ৫ তলা বিল্ডিং-এর আকারে সেই ঢেউ আজও বর্তমান। গবেষণা অনুযায়ী যে সময় গ্রহাণু সংঘর্ষের ফলে ডাইনোসরদের মৃত্যু হয়েছিল সেই সময় মহা ঢেউ তৈরি হয়েছিল। সেই ঢেউয়ের উচ্চতা প্রায় ৫২ ফুট ছিল বলে জানা যাচ্ছে। 

প্রতীকী ছবি
  • 3/10

উত্তরমধ্য লুইসিয়ানার লট লেকে মাটির প্রায় ৫ হাজার ফুট নিচে এই ঢেউয়ের সন্ধান মিলেছে। সেটি প্রায় ৬.৬০ কোটি বছর পুরনো বলে জানা যাচ্ছে। বৈজ্ঞানিকেরা এটিকে ক্রেটাসিয়াস পিরিয়ড বলছেন। গ্রহাণুর সঙ্গে যখন সংঘর্ষ হয়েছিল সেই সময় এই অঞ্চলের একটা বড় অংশ সমুদ্রে নিচে ছিল। কিন্তু কেন সৃষ্টি হয়েছিল এই ঢেউ?
 

প্রতীকী ছবি
  • 4/10

গ্রহাণু সংঘর্ষের পর গোটা বিশ্বে জলভাগে ঢেউ তৈরি হয়েছিল। চিক্সুলব গ্রহাণু সঙ্গে ইউকাটান উপদ্বীপের সংঘর্ষ হয়। যার জেরে গোটা বিশ্বে ঢেউয়ের সৃষ্টি হয়। একইসঙ্গে মাটিতেও ঢেউ তৈরি হয়। সমুদ্রের তলদেশেও এর প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে। 

প্রতীকী ছবি
  • 5/10

ইউনিভার্সিটি অফ লুইসিয়ানার স্কুল অফ জিয়োসায়েন্সেসের অধ্যাপক ও এই গবেণার বৈজ্ঞানিক গ্যারি কিন্সল্যান্ড বলেন, মহা ঢেউ দেখে বোঝা যাচ্ছে যে গ্রহাণুর সংঘর্ষের ফলে কত বড় প্রলয় এসেছিল। ভাগ্য ভাল যে গোটা বিষয়টি ক্রেটাসিয়াস পিরিয়ডের মধ্যেই শেষ হয়ে গিয়েছিল। ফলে পরে তার ওপরে দেশ গঠন করা হয়েছে। 
 

প্রতীকী ছবি
  • 6/10

এই গবেষণা সেই সময় শুরু করা হয়েছিল যখন, ডিভন এনার্জি লট লেকে একটি থ্রিডি ভূমিকম্প সমীক্ষা চালিয়েছিল। একটি ভূমিকম্প জরিপ পরিচালনা করার সময়, উচ্চতর শব্দ তরঙ্গগুলি মাটির ভিতর পাঠান হয়। সেখানে একটি বিশাল তরঙ্গ দেখে ডেভন এনার্জির আধিকারিকরা ভয় পেয়ে যান।
 

প্রতীকী ছবি
  • 7/10

ইউনিভার্সিটি অফ লুইসিয়ানার জিয়োলজির পোস্ট গ্র্যাজুয়েটের পড়ুয়া তথা এই গবেষণার আরও এক সদস্য কারে এজল জানান, তাঁরা ডিভন এনার্জির তথ্য পরীক্ষা করে দেখেছেন। তাতে ভূমিকম্পের ছবি দেখে তাঁরা অবাক হয়ে যান। পরে সেই ছবিটি তাঁরা প্রফেসর গ্যারি কিন্সল্যান্ডকে দেখান।
 

প্রতীকী ছবি
  • 8/10

গ্যারি কিন্সল্যান্ড এর আগেই চিক্সুলুবের প্রভাব নিয়ে গবেষণা করেছিলেন। তাতে তিনি ভূমিকম্পের চিত্র দেখে বোঝেন যে সেটি কোনও সাধারণ তরঙ্গ ছিল না। 
 

প্রতীকী ছবি
  • 9/10

গ্যারি তখনই বলেছিলেন, যে এটি সেই গ্রহাণুর সংঘর্ষের ফলেই তৈরি হয়েছে। যাতে পৃথিবীর বুক থেকে সমস্ত ডাইনোসরের মৃত্যু হয়। এই মহা ঢেউগুলির গড় তরঙ্গদৈর্ঘ্য ৬০০ মিটার অর্থাৎ ১৯৬৮ ফুট।
 

প্রতীকী ছবি
  • 10/10

গ্যারি কিন্সল্যান্ড বলেন, এই মহা ঢেউগুলি দেখে মনে হচ্ছে গ্রহাণু সংঘর্ষের ফলে মেক্সিকো উপসাগরের জল খালি হয়ে গিয়েছিল। সুনামির একটি বিশাল ধাক্কা বিশ্বের বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে পড়েছিল। অন্যদিকে মাটিতে ঢেউয়ের কারণে সমুদ্রের নিচে থাকা লুইসিয়ানা হয়ত আমেরিকার মানচিত্রে উঠে আসতে পারে। ধীরে ধীরে তার উপর মাটি এবং পাথরের স্তর তৈরি হয়। ফলে মহা ঢেউ মাটির নিচে চলে যায়।