scorecardresearch
 

Subhashree Ganguly: ডেবিউ সিরিজে চমক শুভশ্রীর! বৃদ্ধার লুকে 'ইন্দু' হয়ে সামনে এলেন নায়িকা

Subhashree Ganguly in Indubala Bhaater Hotel: কল্লোল লাহিড়ীর লেখা উপন্যাস 'ইন্দুবালা ভাতের হোটেল' থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে তৈরি হচ্ছে এই নতুন সিরিজ। অগাস্টের শেষ থেকে শুরু হয় 'ইন্দুবালা ভাতের হোটেল'-র শ্যুটিং। প্রথম লুক প্রকাশ্যে আসার পর শুভশ্রীকে দেখে চমকে গিয়েছেন অনেকেই।

ইন্দুর লুকে অভিনেত্রী শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায় ইন্দুর লুকে অভিনেত্রী শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায়

প্রায় দীর্ঘ ১১ বছর পর প্রযোজনা সংস্থা এসফিএফ (SVF)-এর ঘরে ফিরেছেন টলিউড অভিনেত্রী শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায় (Subhashree Ganguly)। যদিও এবার বড় পর্দা না, তিনি পা রেখেছেন ওটিটি প্ল্যাটফর্মে (OTT Platform)। দেবালয় ভট্টাচার্যর (Debaloy Bhattacharya) পরিচালনায় আসছে হইচই (Hoichoi) -এর নতুন ওয়েব সিরিজ (New Web Series) 'ইন্দুবালা ভাতের হোটেল' (Indubala Bhaater Hotel)। মুখ্য চরিত্র 'ইন্দু'র ভূমিকায় দেখা যাবে রাজ ঘরণীকে। এই খবর আগেই মিলেছিল। এবার সামনে এলো নায়িকার প্রথম লুক। 

কল্লোল লাহিড়ীর (Kallol Lahiri) লেখা উপন্যাস 'ইন্দুবালা ভাতের হোটেল' থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে তৈরি হচ্ছে এই নতুন সিরিজ। অগাস্টের শেষ থেকে শুরু হয় 'ইন্দুবালা ভাতের হোটেল'-র শ্যুটিং। প্রথম লুক প্রকাশ্যে আসার পর শুভশ্রীকে দেখে চমকে গিয়েছেন অনেকেই। এক ঝলকে সত্যিই বোঝা যাচ্ছে না, পোস্টারের অভিনেত্রী কে? সাদা চুল, কোঁচকানো চামড়া, এক বৃদ্ধার বেশে রয়েছেন শুভশ্রী। ছবিতে নায়িকার লুকের জন্য ব্যবহার হয়েছে প্রস্থেটিক মেকআপ (Prosthetic Makeup)। যার পিছনে রয়েছেন, টলিউডের মেকআপ ম্যাজিশিয়াল সোমনাথ কুণ্ডু (Somnath Kundu)।  

 

 

খুলনার পূর্ব পাকিস্তানের কল্পোতা গ্রামের এক তরুণী ইন্দুকে কেন্দ্র করেই গাঁথা হয়েছে এই সিরিজের গল্প। কলকাতায় এমন একজনের সঙ্গে ইন্দুর বিয়ে হয়, যে সব সময় মদ্যপ অবস্থাতেই থাকে। নিয়তির লিখনে খুব কম বয়সেই সে বিধবা হয়। এদিকে সঙ্গে রয়েছে কোলের সন্তান। পূর্ব পাকিস্তান যেদিন বাংলাদেশ হয়, সেদিন তার জীবনের গল্প নয়া মোড় নেয়। অল্প বিস্তর যা সঞ্চয় ছিল, তা দিয়ে এক বিহারী মৎস্যজীবী- লছমির সহায়তায় ইন্দু শুরু করে 'ইন্দুবালা ভাতের হোটেল'।  

আরও পড়ুন: পুজোর পরই শেষ হচ্ছে 'মিঠাই'? আসল সত্যি জানালেন পরিচালক

দুই বঙ্গের (ভারত- পশ্চিমবঙ্গ এবং বাংলাদেশ) সুস্বাদু খাবার পাওয়া যায় ইন্দুবালার হোটেলে। এই শহরে একজন মহিলার জার্নির গল্প বলবে এই নতুন সিরিজ। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে ইন্দুবালার হোটেলের নাম -খ্যাতি ছড়িয়ে পড়ে। খাবারের মাধ্যমে, এখানে হাজির প্রতিটি বাঙালির সীমানা পেরিয়ে, তাদের জন্মভূমিতে ফিরে যাওয়ার আকাঙ্ক্ষায় ইন্দুবালার ভাটার হোটেলে বেঁচে থাকে।

আরও পড়ুন: লড়াই শেষ, মাত্র ৫৮ বছর বয়সে প্রয়াত কমেডিয়ান রাজু শ্রীবাস্তব

শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায় এর আগে জানিয়েছিলেন জানান, "প্রথমত আমি অত্যন্ত উচ্ছ্বসিত যে শেষমেশ আমি ওটিটি-তে ডেবিউ করতে পেরেছি এবং সেটাও হইচই-এর মতো প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে। এটি নিঃসন্দেহে বাংলার একটি শীর্ষস্থানীয় ওটিটি প্ল্যাটফর্ম। এখানে আমার চরিত্রের অনেকগুলো স্তর রয়েছে। যার ফলে চ্যালেঞ্জও অনেক বেশি। এজন্যেই আমার মনে হয়েছে ডেবিউ করার জন্য এই সিরিজটিই শ্রেষ্ঠ। ইন্দুবালা জটিল, অনুপ্রেরণামূলক এবং শক্তিশালী একটা চরিত্র। সত্যি বলতে আমি কিছুটা নার্ভাস এবং একই সঙ্গে দারুণ উৎসাহিত। এছাড়াও, আমি দীর্ঘদিন ধরে দেবলয় ভট্টাচার্যের সঙ্গে কাজ করতে চেয়েছিলাম। এই সিরিজের মধ্যমে সেই সুযোগ এসেছে। আমি নিশ্চিত যে গোটা টিম কঠোর পরিশ্রম করবে, 'ইন্দুবালা ভাতের হোটেল' সফল করতে।" 


 

 
; ; ;