scorecardresearch
 

প্রিজন ভ্যান থেকে পালাল সুপারি কিলার, শ্রীরামপুরে চাঞ্চল্য

গত বুধবার খুন হন শ্রীরামপুরের দাসপাড়ার বাসিন্দা গৌতম দাস। বৃহস্পতিবার এলাকার একটি পুকুর থেকে তাঁর দেহ উদ্ধার হয়। ঘটনার তদন্তে নেমে কৃষ্ণ সরকার নামে একজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করে জানা যায়, সম্পত্তির লোভেই দাদা গৌতম দাসকে মারার সুপারি দিয়েছিল তাঁর ভাই উজ্জ্বল দাস। এরপর উজ্জ্বল ও তার ভগ্নিপতি বিজয় মণ্ডলকে গ্রেফতার করে পুলিশ। 

প্রতীকী ছবি প্রতীকী ছবি
হাইলাইটস
  • পালিয়ে গেল খুনের অভিযুক্ত
  • পুলিশের চোখে ধুলো দিয়ে পলাতক
  • হুগলির শ্রীরামপুরের ঘটনা

মেডিক্যাল পরীক্ষার জন্য নিয়ে যাওয়ার সময় পুলিশের প্রিজন ভ্যান থেকে পলাতক সুপারি কিলার। ঘটনাটি ঘটেছে হুগলির শ্রীরামপুরে। এই ঘটনায় ইতিমধ্যেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে প্রশাসনিকমহলে। গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখছে পুলিশ। 

জানা গিয়েছে, গত বুধবার খুন হন শ্রীরামপুরের দাসপাড়ার বাসিন্দা গৌতম দাস। বৃহস্পতিবার এলাকার একটি পুকুর থেকে তাঁর দেহ উদ্ধার হয়। ঘটনার তদন্তে নেমে কৃষ্ণ সরকার নামে একজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করে জানা যায়, সম্পত্তির লোভেই দাদা গৌতম দাসকে মারার সুপারি দিয়েছিল তাঁর ভাই উজ্জ্বল দাস। এরপর উজ্জ্বল ও তার ভগ্নিপতি বিজয় মণ্ডলকে গ্রেফতার করে পুলিশ। 

এদিকে শুক্রবার কৃষ্ণ সরকার ও উজ্জ্বল দাসকে আদালতে পেশ করা হলে তাদের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারক। সোমবার শ্রীরামপুর ওয়ালস হাসপাতালে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল কৃষ্ণকে। অভিযোগ, তখনই পুলিশের চোখে ধুলো দিয়ে সেখান থেকে পালিয়ে যায় কৃষ্ণ। 

এই ঘটনায় রীতিমত চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। তোলপাড় পড়ে যায় পুলিশ-প্রশাসনমহলে। পলাতক সুপারি কিলারের দ্রুত গ্রেফতারি এবং ঘটনায় সমস্ত দোষীদের কড়া শাস্তির দাবি জানাচ্ছেন এলাকাবাসীরা।

আরও পড়ুনচন্দ্রগ্রহণে সূর্য-মঙ্গলের স্থান পরিবর্তন, এই ৩ রাশির সাবধানতা জরুরি