scorecardresearch
 

Personality Development Tips And Tricks: নিজের কথা অন্যদের বোঝাতে পারেন না? এই ৩ টিপসে করুন বাজিমাত

Personality Development Tips And Tricks: ক্ষমতা এবং প্রতিভা থাকা সত্ত্বেও অনেকে সাফল্য লাভ করতে পারেন না শুধু অন্যদের সামনে নিজের কথা ঠিকঠাক উপস্থাপিত না করতে পারার জন্য। অন্যেরা মনে করতে থাকেন যে, তাদের কাছে নিজস্ব কোনও বিচার নেই। কিন্তু এমন নয়। নিজেদের বক্তব্য পরিষ্কার করে রাখতে না পারার কারণে তাদের মধ্যে কমিউনিকেশন গ্যাপ তৈরি হয়। কিন্তু সহজে তা দূর করা যায়। তাঁদের জন্য রইল এই টিপস।

নিজের কথা অন্যদের বোঝাতে পারেন না? এই ৩ টিপসে করুন বাজিমাত নিজের কথা অন্যদের বোঝাতে পারেন না? এই ৩ টিপসে করুন বাজিমাত
হাইলাইটস
  • নিজের কথা অন্যদের বোঝাতে পারেন না?
  • এই ৩ টিপসে করুন বাজিমাত
  • আত্মবিশ্বাস এবং বডি ল্যাঙ্গুয়েজ গুরুত্বপূর্ণ

Personality Development Tips And Tricks: আমরা অনেক সময় দেখে থাকব যে কিছু লোক নিজের মনের কথা অন্যের সামনে পরিষ্কার করে ব্যক্ত করতে পারেন না। বলতে গেলে তোতলানো শুরু হয়, অথবা দ্বিধাবোধ করেন। বলবেন কি না, সেটা ভাবতে ভাবতেই বলার সময় পার হয়ে যায়। এই সমস্ত লোক তাদের ভেতরে ক্ষমতা এবং প্রতিভা থাকা সত্ত্বেও সাফল্য লাভ করতে পারেন না। অন্যেরা মনে করতে থাকেন যে, তাদের কাছে নিজস্ব কোনও বিচার নেই। কিন্তু এমন নয়। নিজেদের বক্তব্য পরিষ্কার করে রাখতে না পারার কারণে তাদের মধ্যে কমিউনিকেশন গ্যাপ তৈরি হয়।

আরও পড়ুনঃ বৃহস্পতির মার্গীতে ৪ রাশির, দুর্দশা-শত্রু বৃদ্ধি সাবধানে থাকতে হবে কাদের?

কীভাবে নিজেদের সাফল্য থেকে দূরে সরিয়ে নিয়ে যান

আসলে অন্যের সামনে নিজের কথা পরিষ্কার করে ব্যক্ত করতে না পারার কারণে কিছু লোক ভালো সুযোগ হারিয়ে দেন। অফিসে অনেক সময় এমন হয় যে নিজের ফায়দার কথা সিনিয়রদের সামনে রাখতে পারেন না. এ কারণে তারা সেই সুবিধাটুকু পান না। অথচ সামান্যই হয়তো বদলে যেতে পারত তাঁর ভাগ্য। এটা জরুরি যে আপনি যদি আপনার এই অভ্যাস লেগে থাকবে। শুধু অফিস নয়, ঘরে বাইরে যে কোন জায়গাতেই এই অভ্যাস বদল দরকার। কীভাবে আপনি আপনার এই অভ্যাস দূর করতে পারেন?

নিজের দৃষ্টিভঙ্গি বদলাতে হবে

কারও সামনে নিজের কথা উপস্থাপন করতে হলে সবচেয়ে বড় কারণ হলো আমরা লোকেদের সামনে নিজেদের কথা পরিষ্কার করে রাখতে পারি না। ফলে আমাদের বক্তব্য এবং চিন্তাভাবনা কী, তা সামনের লোক বুঝতে পারেন না এবং আমাদের কথা গুরুত্ব দেন না। এই জন্য জরুরি যে আপনি যদি আপনার কথা এবং অ্যাপ্রচ বদলে ফেলেন তাহলে অনেকটা সুবিধা হবে। আপনি যখন কোন কথা কাউকে বলছেন তখন আপনাকে ভেবে নিতে হবে যে সামনের লোকটির উত্তর কী হতে পারে? দু তিনটে সম্ভাব্য উত্তর যদি আপনার জানা থাকে তাহলে আপনার কথা বলতে অনেক সুবিধা হবে এবং পরবর্তী বিষয়টি কাউন্টার করতেও সুবিধা হবে। মনে নেতিবাচক চিন্তাভাবনা নিয়ে কখনও অ্যাপ্রোচ করবেন না। আপনার সদর্থক মনোভাব আপনার বডি ল্যাঙ্গুয়েজে প্রকাশ পায়। তাই সেভাবেই কারো সামনে গিয়ে কথা বলুন।

নিজের উপর বিশ্বাস রাখুন

সামনে নিজের কথা না রাখত পাড়ার অন্য আরেকটি সবচেয়ে বড় কারণ হলো আমরা নিজেদের উপর বিশ্বাস রাখতে পারি না। আমি কি বিষয়টি পারব? এই ভাবতে ভাবতেই আমাদের কনফিডেন্স লুজ হতে শুরু করে। আমরা যেটা ভাবছি সে সঠিক কি না, অন্যেরা কী ভাববে এই সমস্ত ভাবনা আমাদের মনের মধ্যে ভিড় করে। সাফল্য লাভ করতে হলে এগুলি ঝেড়ে ফেলা উচিত। তাই নিজের বক্তব্য স্থির করে তা উপস্থাপন করে ফেলা উচিত এবং যখন যেটি বলবেন আপনি সেটি বিশ্বাস করছেন সেই মনোভাব যেন আপনার সারা শরীরের কায়দায় ফুটে ওঠে। তাতে আপনার কাজ সাফল্যের সম্ভাবনা বেড়ে যাবে।

স্ট্রেস কমাতে কলা খান, হার্ট থেকে ব্লাড প্রেসার কমবে কদলিতেই

কাউকে খুশি করতে চাইবেন না

অন্যের সামনে নিজের কথা রাখার সময় কাউকে খুশি করার চেষ্টা করবেন না। যেটা সঠিক এবং আপনার যেটা চাহিদা সেটি যদি আপনি পূরণ করতে চান, তাহলে সঠিক জায়গায় সঠিক কথাটি বলতে হবে। যদি আপনি বেশি চিন্তা করেন যে বস বা সিনিয়র বা যাঁকে যে কথাটি বলছেন, তাঁকে খুশি করতে হবে, তাহলে আপনাকেই তার যোগদান করতে হবে।