scorecardresearch
 

LIC IPO সম্ভাব্য কত তারিখে আসছে বাজারে? জেনে নিন

LIC IPO Launch Date: আপনি যদি এলআইসি আইপিও (LIC IPO)-তে বিনিয়োগের অপেক্ষায় থাকেন, তাহলে আপনি শিগগিরি এই সুযোগটি পেতে চলেছেন। ৩১ মার্চের আগে এই আইপিও চালু করার লক্ষ্য রয়েছে সরকারের।

এলআইসি আইপিও আসতে পারে মার্চ মাসে (প্রতীকী ছবি) এলআইসি আইপিও আসতে পারে মার্চ মাসে (প্রতীকী ছবি)
হাইলাইটস
  • এলআইসি আইপিও বাজারে আসতে পারে ১০ মার্চ
  • সবাই এর জন্য অপেক্ষা করছেন
  • সেবি-র কাছে খসড়া রেড হেরিং প্রসপেক্টাস (DRHP) দাখিল করেছে

LIC IPO Launch Date: আপনি যদি এলআইসি আইপিও (LIC IPO)-তে বিনিয়োগের অপেক্ষায় থাকেন, তাহলে আপনি শিগগিরি এই সুযোগটি পেতে চলেছেন। ৩১ মার্চের আগে এই আইপিও চালু করার লক্ষ্য রয়েছে সরকারের। কিন্তু এরই মধ্যে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, ১০ মার্চ এই IPO চালু হতে পারে।

আরও পড়ুন: Dividend Yield Fund: বাজার ধাক্কা খেলেও ঝটকা কম, জানুন

এলআইসি আইপিও (LIC IPO বিশদ বিবরণ)
রিপোর্ট অনুসারে, এই IPO বিনিয়োগকারীদের জন্য ১০ মার্চ (LIC IPO Open Date) খোলা হবে এবং ১৪ মার্চ পর্যন্ত খোলা থাকবে। জানা গিয়েছে যে LIC-এর ইস্যুর সাইজ হতে পারে ৬৫ হাজার কোটি টাকা। বেশিরভাগ রিটেল বিনিয়োগকারীর মধ্যে এলআইসি আইপিও সম্পর্কে উৎসাহ দেখা যাচ্ছে।

ইস্যু প্রাইস নিয়ে
এখন মানুষ জানার চেষ্টা করছে এই মেগা আইপিওতে আবেদন করতে অন্তত কত টাকা লাগতে পারে। যদি বিভিন্ন অনুমানে বিশ্বাস করা হয়, তাহলে এলআইসি-এর ইস্যু প্রাইস (LIC Issue Price) ২,০০০ টাকা থেকে ২,১০০ টাকার মধ্যে হতে পারে। এমন পরিস্থিতিতে, আপার প্রাইস ব্যান্ড অনুসারে, খুচরা বিনিয়োগকারীকে অনেকের জন্য ১৪,৭০০ টাকা বিনিয়োগ করতে হবে। এক লটে ৭টি শেয়ার থাকতে পারে।

যদিও প্রাইস ব্যান্ড এবং এলআইসি আইপিও (LIC IPO) খোলার তারিখ সম্পর্কে সরকারের পক্ষ থেকে এখনও কোনও তথ্য দেওয়া হয়নি। তাই প্রাইস ব্যান্ড এবং আইপিও খোলার তারিখ নিয়ে যে খবর জানা যাচ্ছে, তা শুধুমাত্র অনুমানের ওপর ভিত্তি করে।

৫ শতাংশ শেয়ার বিক্রির প্রস্তুতি
ঘটনা হল বিমা কোম্পানি (LIC) ১৩ ফেব্রুয়ারি সেবি (SEBI)-এর কাছে খসড়া কাগজপত্র জমা দিয়েছিল। এই নথি জমা দেওয়ার পর কোম্পানিটি মার্চের মধ্যে ৫ শতাংশ শেয়ার বিক্রির প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে প্রস্তুত। খসড়া অনুযায়ী মোট ৩১,৬২,৪৯,৮৮৫টি শেয়ার ইস্যু করা হবে।

এলআইসি-র মেগা আইপিও-র পর এটি রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজকে (আরআইএল বা RIL)-কে ছাপিয়ে মার্কেট ক্যাপে দেশের বৃহত্তম সংস্থা হয়ে উঠবে। আইপিও সংক্রান্ত সেবি-তে জমা দেওয়া নথি অনুসারে, সরকার ৩১ কোটি ইকুইটি শেয়ারের মাধ্যমে তার ৫ শতাংশ শেয়ার বিক্রি করবে। বর্তমানে এলআইসিতে সরকারের ১০০ শতাংশ শেয়ার রয়েছে।

এলআইসি পলিসি হোল্ডারদের মধ্যে 'ছাড়', উৎসাহ
দেশের সবচেয়ে বড় এই আইপিওর জন্য সরকার পলিসি হোল্ডারদের জন্যও একটি অংশ সংরক্ষণ করেছে। LIC-এর IPO-তে ১০ শেয়ার পলিসিধারীদের জন্য সংরক্ষিত থাকবে। সাধারণ বিনিয়োগকারীরাও আইপিওতে শেয়ার দরে ৫ শতাংশ ছাড় পেতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। তাই পলিসি হোল্ডারদের আইপিও নিয়ে উৎসাহ দেখা যেতে পারে।

আরও পড়ুন: বদলে যেতে পারে শিশুদের নাকের আকার, নাক থেকে রক্ত ঝরা অবহেলা নয়