scorecardresearch
 

রবিবার 'গণভোট' নেবেন ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব

মুখ্যমন্ত্রী পদে তিনি থাকবেন কিনা, তা জানবেন মানুষের কাছ থেকে। তাঁদের রায় নেবেন সরাসরি। এমনই আয়োজন করেছেন ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব। ১৩ ডিসেম্বর, রবিবার আস্তাবল ময়দানে।

ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব। ছবি সৌজন্য: তাঁর ফেসবুক প্রোফাইল ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব। ছবি সৌজন্য: তাঁর ফেসবুক প্রোফাইল
হাইলাইটস
  • মুখ্যমন্ত্রী পদে তিনি থাকবেন কিনা
  • তা জানবেন মানুষের কাছ থেকে
  • মনই আয়োজন করেছেন ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব

মুখ্যমন্ত্রী পদে তিনি থাকবেন কিনা, তা জানবেন মানুষের কাছ থেকে। তাঁদের রায় নেবেন সরাসরি। এমনই আয়োজন করেছেন ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব।

মুখ্যমন্ত্রী গণভোটের আয়োজন করছেন, দেশে কবে এমন হয়েছে, মনে করতে গিয়ে কালঘাম ছুটে যাচ্ছে রাজনীতি বিশেষজ্ঞদের। তাঁকে নিয়ে দলের মধ্যে বিক্ষোভ ছিল। এমনকী দলীয় সভাতেও "বিপ্লব হঠাও, বিজেপি বাঁচাও" স্লোগান শুনতে হয়েছে তাঁকে।

রবিবার কী করবেন, বিপ্লব দেব সে কথা ঘোষণা করে দিয়েছেন। তিনি থাকবেন, ক্নী, তা মানুষ ঠিক করবে। আর তাই ১৩ তারিখে ওই আয়োজন।

এদি এক সাংবাদিক বৈঠকে তিনি বলেন, "একটা ঘটনা ঘটেছে, যা আমাকে আঘাত দিয়েছে। রাজ্য সরকারি অতিথিশালায় কিছু মানুষ স্লোগান তুলেছেন"বিপ্লব হঠাও, বিজেপি বাঁচাও"। আমি ত্রিপুরার সব মানুষকে বলতে চাইব, আমাকে মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে বেছে নেওয়ার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি। আমি আপনাদের কাছে কৃতজ্ঞ থাকব। আমি এবার তাঁদের কাছে থেকেই সরাসরি জানতে চাই, তাঁরা আমাকে রাখতে চান না সরাতে চান। রবিবার আমি আস্তাবল ময়দানে যাচ্ছি। আমি সেখানে ত্রিপুরার মানুষের কাছে জানতে চাইব, আমি মুখ্যমন্ত্রী পদে থাকব, না পদত্যাগ করব।"

তিনি আরও বলেন, "ত্রিপুরার সব মানুষের কাছে আবেদন করব, আপনারা সেখানে উপস্থিত হন। আর আমাকে সরাসরি বলুন। আপনাদের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত বলে মেনে নেব আমি। যাঁরা বিরুদ্ধে কথা বলছেন, তাঁদের জানাতে চাই মানুষ এ ব্যাপারে কী ভাবছেন।"

ওইদিন সবাইকে সেখানে যাওয়ার আবেদন করেছেন তিনি। তিনি বলেন,"আমি ত্রিপুরার সব মানুষকে আবার আবেদন করছি ১৩ ডিসেম্বর আস্তাবল ময়দানে উপস্থিত হবেন। আর সেখানে আপনারা আপনাদের সিদ্ধান্ত জানাবেন। আমি মানুষের জন্য কাজ করতে চাই। তবে রাজ্যে যে বেআইনি কাজ হচ্ছে, তা মেনে নেব না।"

তিনি মানুষের রায় নেবেন। তবে ব্য়ালটে নয়, সরাসরি মানুষের মুখ থেকে। তাই তাঁদের আহ্বান জানিয়েছেন আস্তাবল ময়দানে আসার।

ওই রাজ্যে বিজেপি এবং আইপিএফটি জোট সরকার চালাচ্ছে। ২০১৮ সালে বিধানসভা ভোটে ৬০টি আসনের মধ্যে তারা পেয়েছিল ৪৪টি।